June 1, 2020, 4:34 am

শিরোনাম :
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার মধ্যে ফলাফলের শীর্ষ তালিকায় এগিয়ে গোরারাই ওয়াহিদ সিদ্দেক উচ্চ বিদ্যালয় লকডাউন উত্তলনের প্রথম একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ও সর্বোচ্চ মৃত্যু আলফাডাঙ্গায় জীবন বাঁচাতে সংবাদ সম্মেলন করলেন এক বৃদ্ধ রাজশাহীর পুঠিয়ায় কাঠমিস্ত্রির কাজ করে এবারের এসএস’সি পরীক্ষায় সফল রাসেল মিয়া! কৃষক পর্যায়ে রাজাহীর তানোরে নূর মোহাম্মদের ক্ষেতে ৩৭ প্রকারের নতুন ধান উদ্ভাবন! র‌্যাব-৫ এর মাদক বিরোধী অভিযান হেরোইনসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার! পটুয়াখালীতে অতিরিক্ত যাত্রী বহনের দায়ে সুন্দরবন লঞ্চকে বিশ হাজার টাকা জরিমানা চিলমারী ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে নিখোঁজের তিনদিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার গোয়াইনঘাটে জমিয়তের ১লক্ষ টাকার ত্রাণ বিতরণ করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে না আসা পর্যন্ত এইচএসসি পরীক্ষা নয় -ডা. দিপু মনি

কুড়িগ্রামে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতি সেবিকার মৃত্যু,ধর্মঘট

Spread the love

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতি সেবিকার মৃত্যু,ধর্মঘটরত হাসপাতালের সেবিকাবৃন্দ।

চিকিৎসকের অবহেলায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের এক প্রসূতি সেবিকার মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদ ও ওই চিকিৎসকের অপসারণ দাবিতে গতকাল ২৭ অক্টোবর ২০১৯ রবিবার সকাল থেকে হাসপাতালের নার্সরা কর্মবিরতি রেখে প্রশাসনিক কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে ধর্মঘট পালন করেন।মৃত হাজেরা খাতুন (২৫) গাইবান্ধা জেলা সদরের উত্তর ঘাগওয়া গ্রামের দুদু মিয়ার মেয়ে।জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স প্রসূতি হাজেরা খাতুনের সিজার করেন চিকিৎসক অমিত কুমার বসু। কিন্তু রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তাকে ওই দিনই রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনা কেন্দ্র করে গতকাল সকাল থেকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সব নার্স তাদের কর্মবিরতি রেখে প্রশাসনিক কার্যালয়ের সামনে ধর্মঘট করেন।এ সময় নার্স তিন্নি, নাসিমা ও জাহানারা বলেন, ডা. অমিত কুমার বসুর অবহেলায় আমাদের সহকর্মী হাজেরা খাতুনের মৃত্যু হয়েছে। আমরা তার অপসারণসহ বিচার দাবি জানাচ্ছি। এ সময় চিকিৎসা নিতে আসা বহিরাগত এক রোগীর পরিবারের সঙ্গে নার্সদের কথা কাটাকাটিতে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক এসে নার্সদের ১১ দফা দাবি মেনে নিলে নার্সরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন। তত্ত্বাবধায়ক ডা. আবু মো. জাকিরুল ইসলাম বলেন, কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালেরসিনিয়ির নার্স প্রসূতি হাজেরা খাতুনের সিজারের পর মৃত্যুর ঘটনায় নার্সরা একটু বিশৃঙ্খলা করেন। আমি তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। এ ঘটনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/২৮ অক্টোবর ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ