August 23, 2019, 8:27 pm

শিরোনাম :
বোয়ালমারীতে জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত সুন্দরগঞ্জে হিন্দু মহাজোটের শোভাযাত্রা পূর্ব শত্রুতার জেরে তালায় প্রতিপক্ষের কলাগাছ কেটে সাবাড় বগুড়ার পীরগাছা শ্রীকৃষ্ণের জন্মদিন উপলক্ষে র‌্যালী তাহিরপুরে ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ ভ্রাতৃত্ব ফাউন্ডেশনের অসহায় লোকের কাঙ্গালী ভোজ কেশবপুরে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জন্মাষ্টমী পালিত জামালপুরের ডিসির সাথে অফিস সহকারির আপত্তিকর নিয়ে তোলপাড় তাহিরপুরে কৃষ্ণজন্মাষ্টমী পালিত শিবগঞ্জ বাসি বীরমুক্তিযোদ্ধার সন্তান ডঃ তোহিদুল ইসলাম পলাশকে শ্রমিকলীগ সভাপতি হিসেবে দেখতে চায় দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার “সুলতান মাহমুদ অটিজম ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের উদ্দেগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

কেশবপুরে স্বর্ণের দেবী মূর্তি উদ্ধারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

Spread the love

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) থেকেঃ

যশোরের কেশবপুর উপজেলার মির্জানগর গ্রামের নবাববাড়ি পুকুর থেকে উদ্ধার হওয়া স্বর্ণের দেবী মূর্তিটি সরকারের প্রতœতত্ত্ব দপ্তরে জমা দেয়ার দাবিতে সোমবার সকালে কেশবপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন উপজেলার মির্জানগর গ্রামের শেখ ওয়াজেদ আলীর ছেলে জামশেদ আলী বিশে । লিখিত বক্তব্য পাঠকালে তিনি জানান,গত ৬ মে রাত ১০টার দিকে নবাববাড়ি এলাকার সন্তোষ দত্তের ছেলে গনেশ দত্ত সাতবাড়িয়া বাজার থেকে মাছের খাদ্য ক্রয় করে তার ভ্যানযোগে বাড়িতে নিয়ে যায়। এ সময় গনেশ দত্ত পুকুরে মাছের খাদ্য ছিটাতে টর্চ লাইট জ্বালানোর জন্যে তাকে নিয়ে যায়। পুকুরে পানিতে নেমে টর্চ লাইট জ্বালিয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর তার পায়ে কিছু একটা বেঁধে যায়। তিনি কৌতুহলবশত: কাদার ভেতর থেকে সেটা উদ্ধার করে পরিস্কার করলে বুঝতে পারেন আসলে সেটি একটি দূর্লভ সোনার দেবদেবীর নারী মূর্তি। বিষয়টি বুঝতে পেরে গনেশ দত্ত তার কাছ থেকে মূর্তিটা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে ছিনতাইকারী বলে চিৎকার করতে থাকে। পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার রফিকুল ইসলাম ২ দফা সালিসি বৈঠক বসালেও গনেশ দত্ত ওই মূর্তি পাবার কথা অস্বীকার করে আসছে। সোনার মূর্তিটি  আত্নসাতের লক্ষ্যে গনেশ দত্ত সর্বশেষ সালিসে একটি পিতল/কাসার মূর্তি পেয়েছে বলে উপস্থিত সকলকে দেখালেও তার সাথে পুকুর থেকে পাওয়া মূর্তির কোন মিল নেই বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সামজেদ আলী ওই দূর্লভ সোনার দেবদেবীর নারী মূর্তিটি উদ্ধার করে সরকারের প্রতœতত্ত্ব দপ্তরে জমা দেয়ার দাবি জানিয়েছেন। বর্তমান গনেশ দত্ত আমিসহ আমার পরিবারকে একের পর এক প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সালেহা খাতুন, সোনিয়া খাতুন, নুরজাহান খাতুন, সাদিকুল ইসলাম প্রমুখ।এ ব্যাপারে গনেশ দত্ত বলেন, বিষয়টি নিয়ে চেয়ারম্যান কয়েক দফা সালিস করে মিমাংশা করে দিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট এলাকার চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান বলেন, নবাববাড়ির পুকুর থেকে উদ্ধার হওয়া মূর্তি নিয়ে কয়েক দফা সালিস করে বিষয়টি নিরসন করা হয়েছে। কেশবপুর থানার ওসি মো. শাহিন বলেন, অভিযোগটি পেয়েছি। তদন্ত চলছে। সত্যতা মিললে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৬ আগস্ট ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ