August 20, 2019, 3:56 pm

শিরোনাম :
ভোলার ইলিশায় বাসর রাতেই স্কুল শিক্ষকের ঝুলন্ত লাশ সুনামগঞ্জে মিথ্যা মামলা দিয়ে ৩ সাংবাদিককে হয়রানীর চেষ্টা বোয়ালমারীতে সড়ক পাকার দাবীতে মানববন্ধন তালায় বয়স্ক,বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা,অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা ও প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি কার্যক্রম সফল বাস্তবায়নে সেমিনার গুইমারায় অস্ত্র উদ্ধার সিলেটের লালাখাল সীমান্তে বিএসএফ‘র গুলি ২ বাংলাদেশী আহত, ৪টি নৌকা আটক বগুড়া সরদ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে পোনা মাছ অবমুক্ত কার্যক্রমের উদ্বোধন বিএনপি বিদেশিদের কাছে কান্নাকাটি করছে -সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মিন্নির গ্রেফতার-জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে জানতে চান হাইকোর্ট ঝুঁকি এড়াতে সশস্ত্র বাহিনীর চাকরিচ্যুতদের দলে টানছে জঙ্গিরা

ওর বয়স হয়েছে, জাতীয় সংগীতের মর্ম কী বুঝতে হবে: সামিনা

Spread the love

ওর বয়স হয়েছে, জাতীয় সংগীতের মর্ম কী বুঝতে হবে: সামিনা

ডিটেকটিভ বিনোদন ডেস্ক

ভারতের জনপ্রিয় গানের রিয়্যালিটি শো ‘সা রে গা মা পা’র দ্বিতীয় রানারআপ নোবেল ফলাফল ঘোষণার সামনে থেকেই দুই বাংলায় তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। এবার নিজ দেশ বাংলাদেশের ‘জাতীয় সংগীত’ নিয়ে তাঁর মন্তব্যে উঠল সমালোচনার ঝড়।

এক সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে জাতীয় সংগীত ‘আমার সোনার বাংলা’কে ‘কটা’ করেছেন বলে নালিশ উঠেছে মাইনুল আহসান নোবেলের বিরুদ্ধে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘আমার সোনার বাংলা’ নয়, গীতিকার-সুরকার প্রিন্স মাহমুদের লেখা ‘বাংলাদেশ’ গানটিই বাংলাদেশকে প্রচুর বেশি করে চিনিয়ে দেয় বলে মত নোবেলের।

এ প্রসঙ্গে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী সামিনা চৌধুরী  বলেছেন, ‘আমি বিমানবন্দর থেকে বের হলাম। দেশে আসলাম। আমি এখনো বাসায় যাইনি। বাসায় ফিরতেছি। আসলে এরা বাচ্চা ছেলে, এরা কী বলে না বলে! এদের উক্তি শুনিও না। এদের উক্তি যত বেশি শুনবা, তত বেশি ইম্পোরট্যান্স (গুরুত্ব) দেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, ‘ও বেচারা বুঝতে পারেনি যে ও কী বলতে কী বলে ফেলল।’

সামিনা চৌধুরী বলেন, ‘ও (নোবেল) আর কি বুঝতে পারে নাই যে জিনিসটা এত সিরিয়াস একটা ইস্যু হবে, আমার যেটা দেখে মনে হইছে। আমি আসলে কিপটা ভালো করে দেখিনি। আমি দেখি, তারপর কমেন্ট করতে পারব। না জেনে কমেন্ট সাধন যাবে না। তবে দেশের জাতীয় সংগীতকে নিয়ে কোনোভাবেই কোনো মন্তব্য সাধন ঠিক নয়। আসলে সবার সামনে নিজের দেশের জাতীয় সংগীতকে ভালোবাসতে হবে। সে যেমনই হোক। এটা হচ্ছে প্রথম কথা। এই জিনিসটা ওর বোঝা উচিত ছিল। এটা একটা ভুল হইছে মস্তবড়। জাতীয় সংগীত শুনলেই আমার রোদন পায়। আমি তো গাইতেই পারি না গানটা। গাইতে গেলেই আমার রোদন আসে। তো, ও বেচারা বুঝতে পারেনি যে ও কী বলতে কী বলে ফেলল। আমার মনে হচ্ছে তাই, ওর চেহারাটা দেখে আমার মনে হচ্ছে। ওর তো বয়স হয়েছে, ওর তো বুঝতে  হবে জাতীয় সংগীত কী, এর মর্ম কী, এটা ওকে বুঝতে হবে।’সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল ভিডিওতে নোবেলকে বলতে শোনা যায়, “প্রিন্স মাহমুদ স্যারের যে ‘বাংলাদেশ’ গানটা, আমি একটা উক্তি বলব এইটা নিয়ে। কেউ হয়তো মন্দ মনে করতে পারে, বাট আমার পারসোনাল অপিনিয়ন এইটা। আমি মনে করি, আমাদের জাতীয় সংগীত ‘আমার সোনার বাংলা’ আমাদের দেশটাকে যতটা এক্সপ্লেইন করে, তার থেকে অল্পসংখ্যক ৩হাজার গুণ বেশি এক্সপ্লেইন করে অথচ প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা এই গানটা। আমাদের জাতীয় সংগীত যেটা আছে, সেটা হয়তো রূপক অর্থে প্রচুর সামান্য বুঝিয়ে দেয়, বাট এইটা (প্রিন্স মাহমুদের লেখা ‘বাংলাদেশ’ গানটি) অথচ আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, আবেগের জায়গা সবকিছু অথচ প্রোপারলি আমাদের পাশে তুলে ধরে।”

শুধু বাংলাদেশেই নয়, নোবেলের মন্তব্যে রাগ প্রকাশ করেছেন কলকাতার কয়েকজন সংগীতশিল্পীও।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ