September 22, 2019, 6:45 pm

এই নির্মাতা চলচ্চিত্র দিয়েই সৌদি আরবের সংস্কৃতি বদলাতে চান

Spread the love

এই নির্মাতা চলচ্চিত্র দিয়েই সৌদি আরবের সংস্কৃতি বদলাতে চান

ডিটেকটিভ বিনোদন ডেস্ক

হাইফা আল-মনসুর সৌদি আরবের প্রথম নারী নির্মাতা। তার নির্মিত ‘দ্য পারফেক্ট ক্যানডিডেট’ ছবিটি ২৮ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া ভেনিস ফিল্ম ফেস্টিভালে প্রদর্শীত হয়েছেৃ‘সৌদি নারীরা স্পট লাইটে আসতে চায় না। তারা নিজেদের দেখাতে চায় না। নিজেকে লুকিয়ে রাখার প্রবণতা আছে তাদের মধ্যে। নিজের প্রতি বিশ্বাস তৈরির জন্য তাদেরকে সাহস দেয়া জরুরী।’-কথাগুলো বলছিলেন সৌদি আরবের চলচ্চিত্র নির্মাতা হাইফা আল-মনসুর। হাইফা আল-মনসুর সৌদি আরবের প্রথম নারী নির্মাতা। তার নির্মিত ‘দ্য পারফেক্ট ক্যানডিডেট’ ছবিটি ২৮ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া ভেনিস ফিল্ম ফেস্টিভালে প্রদর্শীত হয়েছে। শুধু তাই নয়, তুমুল প্রশংসাও পেয়েছে ছবিটি। জেন্ডার পলিটিকস নিয়ে নির্মিত এই ছবিটি ফিল্ম ফেস্টিভালের প্রতিযোগিতা বিভাগে লড়ছে বিভিন্ন দেশের ছবির সাথে। রক্ষণশীল দেশ সৌদি আরবে দীর্ঘ ৩৫ বছর সিনেমা প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা ছিল। তবে ২০১৮ সালের আগস্টে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়া হয় এবং সিনেমা প্রদর্শন করা শুরু হয়। হলিউড সৌদি আরবকে সিনেমার জন্য বেশ লাভজনক মার্কেট মনে করা শুরু করে এবং সিনেমা রপ্তানির পরিকল্পনা করে।সিনেমা প্রদর্শনের উপর নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়া ছিল হাইফা আল-মনসুরের জন্য বহু প্রতীক্ষিত একটি মুহূর্ত। নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়ার পর নতুন সিনেমা হল নির্মাণ শুরু হয়। হাইফা আল-মনসুরের ‘ম্যারি শেলি’ ছবিটি পুরো বিশ্বের পাশাপাশি প্রদর্শিত হয় রিয়াদের একটি সিনেমা হলে। সৌদি আরবের প্রথম নারী চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবে অনেক প্রতিবন্ধকতা পার হতে হয়েছে তাকে। তবুও তিনি থেমে না থেকে সৃষ্টির নেশায় তৈরি করে গেছেন একের পর এক ছবি। ২০১৮ সালের ২ অক্টোবরে দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট এর সাংবাদিক ও লেখক সৌদি বংশোদ্ভূত জামাল খাশোগি সৌদি সরকারের প্রতিনিধি দ্বারা ইস্তাম্বুলে অবস্থিত সৌদি দূতাবাসে গুপ্তহত্যার শিকার হন। এই ঘটনার পরে সৌদি আরবে সিনেমা পাঠানোর ব্যাপারে হলিউডের দ্বিধাদ্বন্দ্ব শুরু হয়। সেই কঠিন সময়ে হাইফা আল-মনসুর সৌদি আরবের রিয়াদে শুটিং করেন ‘দ্য পারফেক্ট ক্যানডিডেড’ ছবির। একজন কমবয়সী নারী ডাক্তারের রাজনীতিতে জড়ানো নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবির কাহিনী। ছবিটি ভেনিস ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে মুক্তি দেয়া হবে। প্রতিযোগিতা বিভাগে স্থান পাওয়া দুই নারী নির্মাতার সিনেমার মধ্যে একটি ‘দ্য পারফেক্ট ক্যানডিডেড’। হাইফা আল-মনসুর বলেন, ‘শিল্প হলো এমন একটি বিষয় যা ছেড়ে দেয়া যায় না।’ আল-মনসুর বলেন, তিনি এমন সময়ে সৌদি আরবে কাজ শুরু করেছেন যখন হলিউড সৌদিকে রাজনৈতিক এবং আদর্শগত দিক থেকে বিষাক্ত মনে করতো।হাইফা আল-মনসুর আরও বলেন, ‘প্রশ্ন এটা না যে হলিউড ইনভেস্ট করছে কিনা, প্রশ্নটা নিজেদের করা উচিত যে আমরা শিল্পকে কীভাবে মানুষের হৃদয়ে পৌঁছে দিতে পারি এবং সমাজের গতানুগতিক ধারা বদলাতে পারি। সৌদি আরবের নতুন একটি আইন অনুযায়ী নারী তার পুরুষ অভিভাবক ছাড়াই ব্যবসা চালাতে পারবে। এই আইন হওয়ার পরে রিয়াদে আল-মনসুর তার নিজস্ব একটি প্রোডাকশন কোম্পানি খুলেছেন। এই প্রোডাকশন কোম্পানি থেকেই তিনি ‘দ্য পারফেক্ট কোম্পানি’ নির্মাণ করেছেন জার্মান এবং সৌদির সহায়তায়। তবে ছবির বাজেট সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে জানাতে চাননি তিনি। ছবির স্ক্রিপ্ট লেখায় আল-মনসুরের স্বামী ব্র্যাডলি নাইম্যানও সাহায্য করেছেন। ছবির মূল চরিত্রটির সঙ্গে অনেক সৌদি নারীই নিজের মিল খুঁজে পাবেন। স্বাধীনতা বাড়ার সাথে সাথে সৃষ্ট হওয়া নানা সমস্যা দেখানো হবে ছবিতে। আল-মনসুরের মতে, কর্পোরেট দুনিয়া হোক কিংবা রাজনীতি বা ছবি নির্মাণ, সব যায়গাতেই নারীকে অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়। অনেক প্রতিবন্ধকতা আসে যা পুরুষের সামলাতে হয়না। এমনকি কেমন পোশাক পরা হচ্ছে বা কী কথা বলা হচ্ছে, সেটাও বিচার করা হয়। আল-মনসুর জানান, সৌদি সেন্সর তার স্ক্রিপ্ট পড়েছে এবং কিছুই বদলাতে বলেনি। কিন্তু তিনি সীমাবদ্ধতা জানেন। তাই সেভাবেই লিখেছেন। সৌদি আরবের ছোট পর্দার তারকা মিলা আল জাহরানিকে মূল চরিত্রের নিয়েছেন তিনি। প্রায় ৫০ জন মানুষ ছবিতে কাজ করেছে। ছবিটি শুটিং করা হয়েছে রিয়াদের রাস্তায়, একটি হলে এবং একটি ভাড়া বাড়িতে। আরবি ভাষায় মুক্তি পাবে ছবিটি। ২০১২ সালের ‘ওয়াজদা’ ছবির কাজের স্মৃতি রোমন্থন করে আল-মনসুর বলেন, তখন সৌদি আইনে অনেক কড়াকড়ি ছিল। একটি ভ্যানে ছবির শুটিং করা হয়েছিলো। সৌদি আরব অনেক বদলেছে। এবার আর ভ্যানে শুটিং করতে হয়নি। বাহিরেই করা গিয়েছে এবং সব যায়গাতেই যাওয়া গিয়েছে। আল মনসুর বলেন, ‘আমি পলিটিকাল নই। আমি সংস্কৃতি বদলাতে চাই, সেটা হয়তো অনেক ধীরে হবে এবং সেটা লম্বা প্রক্রিয়া। আমাদের সমাজে সংগীত এবং থিয়েটার নেই। এটা এমন একটি সমাজ যার বেড়ে ওঠার সুযোগ নেই। ভেনিসে তার ছবিটির প্রিমিয়ার হলো, প্রশংসিতও হয়েছে। চলচ্চিত্র উৎসবটি শেষ হবে ৭ সেপ্টেম্বর। এরপর আল-মনসুর ভার্জিনিয়ায় যাবেন সোটাইম লিমিটেড সিরিজ ‘দ্য গুড লর্ড বার্ড’ এর একটি পর্বের শুটিং করতে। সিরিজে অ্যাবোলিশনিস্ট চরিত্রে অভিনয় করছেন ইথান হাওকে।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ