August 23, 2019, 3:05 am

শিরোনাম :
তোয়াকুল ছাত্র জমিয়তের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত বগুড়ার মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের নিয়ে জনসেচনতামূলক র‌্যালী ও লিফলেট বিতরন বোয়ালমারীতে প্রাইম ব্যাংক কর্মকর্তার বিদায় বরণ অনুষ্ঠান সারিয়াকান্দিতে বজ্রঘাতে মানুষ সহ গরুর মৃত্যু তাহিরপুর প্রেসক্লাব সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে তাহিরপুর প্রেসক্লাবের নিন্দা ও প্রতিবাদ দেশে সত্যিকারের হিরো কৃষক- কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া তালায় এক বৃদ্ধ রহস্যজনকভাবে আত্নহত্যা আলফাডাঙ্গায় ভাতিজার হাতে চাচী খুন কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে কিশোরীকে ধর্ষণ শেষে হত্যার অভিযোগ জননেতা আতাউর রহমান স্মৃতি পরিষদের সাথে নার্সিং শিক্ষার্থীদের মত বিনিময় সভা

আলফাডাঙ্গায় অনৈতিক কর্মকান্ডের অপরাধে থানার দুই কর্মকর্তা ক্লোজ

Spread the love

আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ
গত ৪ আগস্ট ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা থানার ২ পুলিশ কর্মকর্তাকে অনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে ক্লোজ হয়েছে।অভিযোগ সুত্রে জানা যায় গত ২ আগস্ট বিকালে বারাশিয়া নদীর পাড় থেকে বোয়ালমারী উপজেলার শেখপুর গ্রামের পুলিশের অবঃ এস দ্বাদশ (সম¥ান) ছেলে আরাফাতকে আলফাডাঙ্গা থানা পুলিশের এ এস আই ফারুক ইয়াবা আছে বলে চ্যালঞ্জ করে। তল্লাশিকরে তার কাছে কোন মাদক না পেয়ে তাকে ছেড়ে দেয়।এ সময় আরফাতের সাথে ওই পুলিশ কর্মকর্তার কথা কাটা কাটি হয়। পরে আরাফাত হেটে সামনে কয়েক গজ এগোলে পিছন থেকে আবার ওই এ এস আই ফারুক এসে আরাফাতের পিছনে ইয়াবা ট্যাবলেট ফেলে দিয়ে তাকে ইয়াবা ব্যবসায়ি বলে আটক করে।স্থানীয় লোকজন পুলিশের ইয়াবা ফেলে নাটক সাজিয়ে আরাফাতকে আটকের বিষয়টি দেখে ফেলে। পরে স্থানীয় লোকজনের চাপের মুখে তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।আরাফাতের বাবা অবঃ প্রাপ্ত পুলিশের এস আই আঃ হাই ঘটনা শুনে পরের দিন পুলিশ সুপার ফরিদপুর বরাবর আবেদন করেন পরে গত ৪ জুলাই থানার এ এস আই ফারুক ও তার সাথে থাকা এ এস আই রশিদকে ফরিদপুর পুলিশ লাইনে ক্লোজ করে।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ওসি মো.রিজাউল করিম বলেন, তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে জানা গেছে।তবে দীর্ঘ দিন ধরে এ এস আই ফারুক স্কুল কলেজের নিরীহ ছেলেদের পকেটে গাঁজা, ইয়াবা ঢুকিয়ে দিয়ে অনেককেই হয়রানি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে কাউকে ছেড়ে দিয়েছে আবার কাউকে আদালতে চালান করেছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।এ রকম কর্মকান্ডের জন্য ওই দুই কর্মকর্তার প্রতি তীব্র নিন্দা ও প্রশানিক সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন সুধী জনেরা। এ ব্যাপারে এ এস আই ফারুকের মুঠো (০১৭১২২২৩৮৪৫) বারবার চেষ্টা করে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

প্রাইভেট ডিটেকটিভ/০৬ আগস্ট ২০১৯/ইকবাল

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ