August 23, 2019, 7:29 pm

শিরোনাম :
শিবগঞ্জ বাসি বীরমুক্তিযোদ্ধার সন্তান ডঃ তোহিদুল ইসলাম পলাশকে শ্রমিকলীগ সভাপতি হিসেবে দেখতে চায় দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার “সুলতান মাহমুদ অটিজম ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের উদ্দেগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চাদাঁ দিয়ে নয় ,একই মায়ের অভিন্ন সন্তান হিসেবে বসবাস করতে চাই-কংজরী চৌধুরী তোয়াকুল ছাত্র জমিয়তের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত বগুড়ার মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের নিয়ে জনসেচনতামূলক র‌্যালী ও লিফলেট বিতরন বোয়ালমারীতে প্রাইম ব্যাংক কর্মকর্তার বিদায় বরণ অনুষ্ঠান সারিয়াকান্দিতে বজ্রঘাতে মানুষ সহ গরুর মৃত্যু তাহিরপুর প্রেসক্লাব সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে তাহিরপুর প্রেসক্লাবের নিন্দা ও প্রতিবাদ দেশে সত্যিকারের হিরো কৃষক- কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া তালায় এক বৃদ্ধ রহস্যজনকভাবে আত্নহত্যা

আবারো নির্মাণে মিলন

Spread the love

আবারো নির্মাণে মিলন

ডিটেকটিভ বিনোদন ডেস্ক

থিয়েটারে অভিনয়ে হাতেখড়ি। এরপর পা রাখেন টিভি পর্দায়। চ্যানেল আইতে প্রচারিত ‘রঙের মানুষ’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তিনি। একে একে ‘জয়িতা’, ‘প্রজাপতিকাল’, ‘হাতকুরা’, ‘মধুময়রা’, ‘অতঃপর, ‘শুভাগমন’সহ অসংখ্য দর্শকপ্রিয় নাটকের মাধ্যমে অভিনেতা হিসেবে জনপ্রিয়তা পান। অভিনয়ের টানে ছেড়ে দেন চাকরি। বলছি, এই সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনের কথা।

ছোট-বড় দুই পর্দাতেই মিলন নিজেকে ভার্সেটাইল অভিনেতা হিসেবে বারবার প্রমাণ করেছেন। অভিনয়ের বাইরে তিনি নির্দেশনা দিয়েছেন। ১৯৯৯ সালে প্রথম নাটক নির্মাণ করেন আনিসুর রহমান মিলন। পরের বছরেও তার নির্দেশিত নাটক পেয়েছিলেন দর্শক। দীর্ঘ বিরতি দিয়ে ২০১৮ সালে আবার নির্মাণ করেন নাটক তিনি। আসন্ন ঈদকে টার্গেট করে আবার নির্মাণে এলেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা।

চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে বৃহস্পতিবার দুপুরে আনিসুর রহমান মিলন তার চতুর্থবারের মতো নির্মাণে আসার খবর দিয়েছেন। বললেন, পূবাইলে শুটিং করছি। বুধবার শুটিং থেকে শুটিং শুরু করেছি। বৃহস্পতি ও শুক্রবার করলেই শেষ হবে। এটি ৭ পর্বের একটি ধারাবাহিক। নাম ‘আব্বা উকিল ডাকবো’। প্রচার হবে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে।

আনিসুর রহমান মিলন নির্দেশিত ‘আব্বা উকিল ডাকবো’ নাটকের গল্প ও চিত্রনাট্য করেছেন বিপ্লব হায়দার। নাটকটিতে মিলন নিজেও অভিনয় করছেন। আরও যারা অভিনয় করছেন তারা হলেন জাকিয়া বারী মম, নাজিরা মৌ, আখম হাসান, শাহনাজ সুমি, ফারুক হোসেন, সঞ্জীব, মাসুদ রানা মিঠু, আমিরুল হক চৌধুরী, শবনম পারভিন প্রমুখ।

নিজের নির্দেশিত নাটক প্রসঙ্গে মিলন বলেন, নাটকের গল্পের উপর বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। কমেডি নির্ভর গল্প তবে দর্শকদের কাছে কোনোভাবেই ভাঁড়ামি মনে হবে না। গল্পের মধ্যে বিভিন্ন সিচুয়েশন রয়েছে, গল্প ধরে পূর্ণ ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে। এরমধ্যে দর্শকদের ভালো লাগার উপকরণ থাকবে, হাস্যরস থাকবে।

তিনি বলেন, মনের মধ্যে একটা সুপ্ত ইচ্ছে থেকে নাটক পরিচালনা করছি। তবে নিয়মিত হওয়ার ইচ্ছে নেই। কারণ, আমি একজন অভিনেতা। এটাই থাকতে চাই।

নাটকের পাশাপাশি বড়পর্দায় আনিসুর রহমান মিলন অভিনীত অনেকগুলো ছবি মুক্তি পেয়েছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো অনেক সাধের ময়না, দেহরক্ষী, রাজনীতি ও আলতা বানু।

সর্বশেষ তার মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘স্বপ্নের ঘর’। আগামীতে যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস অবলম্বনে নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল পরিচালিত ‘গাঙচিল’ ছাড়াও তার অভিনীত একাধিক ছবি নির্মাণাধীন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ