October 15, 2019, 6:38 pm

অস্ট্রেলিয়া ঘাড়ে গার্ড ব্যবহার বাধ্যতামূলক করতে চায়

Spread the love

অস্ট্রেলিয়া ঘাড়ে গার্ড ব্যবহার বাধ্যতামূলক করতে চায়

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

অ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্টে প্রচণ্ড গতির বাউন্সারে আঘাত পেয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়লেও পরে ফিরেছিলেন মাঠে। যদিও জোফরা আর্চারের ক্ষিপ্র গতির এই বাউন্সার মনে করিয়ে দিচ্ছিল ফিল হিউজের মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা। এমন দৃশ্যপটে ঘাড়ের সুরক্ষার জন্য বাধ্যবাধকতার কথা বলছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ঘাড়ের এই সুরক্ষার জন্য কথা বলেছেন অজিদের মেডিক্যাল টিমের প্রধান অ্যালেক্স কন্টুরিস। স্টিভেন স্মিথ রিটায়ার্ড হয়ে প্রথম ইনিংসে মাঠে ফিরলেও দ্বিতীয় ইনিংসে আর ব্যাট করতে পারেননি। ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে মাথায় আঘাত জনিত জটিলতা ঝিমানো ভাব থাকায় কনকাশন বদলি নেওয়া হয় স্মিথের বদলে। আইসিসির নতুন নিয়ম অনুসারেই ঘটে তা। স্মিথের এই ঘটনার পর পর ঘাড়ের সুরক্ষা নিয়ে অ্যালেক্স কন্টুরিস বলেছেন, ‘হিউজের মৃত্যুর পর হেলমেট প্রস্তুতকারকরা তাদের কাজ ঠিক মতোই করেছে। কিন্তু এ বিষয়ে কার্যত জ্ঞানটা জানা ছিল না। বিজ্ঞানের কল্যাণে আমরা এ নিয়ে অনেক গবেষণা করেছি। এখন এর ভালো ধারণা আমাদের হয়েছে। ফিল হিউজের মৃত্যুর পর পর অবশ্য অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে হেলমেটে এক ধরনের সুরক্ষা গার্ড ব্যবহৃত হয়ে আসছিল। ব্রিটিশ কোম্পানির তৈরি এই গার্ড স্টেম গার্ড হিসেবে পরিচিত। যদিও এই সুরক্ষা গার্ডটি এখনও বাধ্যতামূলক করা হয়নি। স্মিথ যে বলে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছিলেন সে সময়েও তিনি এই গার্ড ব্যবহার করেননি। এই অবস্থায় কতটুকু অঞ্চল সুরক্ষার মধ্যে থাকবে এ নিয়ে এখনও কাজ করছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সে অনুসারে ঘাড়ের সুরক্ষাকারী গার্ডটিকে আরও উন্নত অবস্থায় দেখতে চান তারা। সেটি হয়তো পাওয়া যাবে ৬ মাসের মধ্যে। তখনই গার্ডটি বাধ্যতামূলক করবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ