July 16, 2019, 8:29 pm

শিরোনাম :
রাজশাহী নার্সিং কলেজের শিক্ষার্থীদের চার দফা দাবিতে বিক্ষোভ নওগাঁর মান্দায় দৈনিক যায়যায়দিন পত্রিকার ১৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত পাইকগাছায় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত রেকজিল এগ্রো ডাচ কোম্পানির সাথে কৃষি মন্ত্রীর বৈঠক ৬৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ ঘোষণা ব্রহ্মপুত্র নদের চিলমারী পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ৭৬ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত তাহিরপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের ত্রাণসামগ্রী ও জরুরী ওষুধপত্র বিতরণ সুন্দরগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতিতে একজনের মৃত্যু: পানি সম্পদ সচিবের পরিদর্শন তাহিরপুরে “স্বপ্নচূড়ার” বন্যা কবলিত ২ শতাধিক পরিবাকে শুখনো খাবার ও ঔষুধ প্রদান ৩১ মাসের মধ্যে সূচক সর্বনিম্ন অবস্থানে বাজারে হোন্ডার নতুন দুই মোটরসাইকেল

অলৌকিকের স্বপ্ন ভেঙে গেল রমিজ রাজার?

Spread the love

অলৌকিকের স্বপ্ন ভেঙে গেল রমিজ রাজার?

ডিটেকটিভ স্পোর্টস ডেস্ক

লক্ষ্যটা পর্বতপ্রতিম হলেও রমিজ রাজার আশা ছিল, পাকিস্তান পারবে। কিন্তু ম্যাচের শুরু থেকেই বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বড় সংগ্রহ নির্মাণের পথটা ক্রমেই কঠিন হয়ে উঠছে।

বাংলাদেশকে বিশাল ব্যবধানে হারানোর লক্ষ্যকে সামনে রেখে মাঠে নেমেছে পাকিস্তান। সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার এবং ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজা অবশ্য বিশ্বাস করেন, লক্ষ্য যত বিশাল আর অসম্ভবই হোক না কেন, সেটা টপকে যাওয়ার সক্ষমতা রয়েছে সরফরাজদের।

আইসিসির উপস্থাপিকা জয়নব আব্বাসের সঙ্গে কথোপকথনে ম্যাচের আগে এই ধারাভাষ্যকার বলেন, ‘এটা অবশ্যই মিরাকল। কিন্তু কখনো কখনো তো মিরাকল হয়। বাংলাদেশকে খুব খারাপ খেলতে হবে, যদি পাকিস্তানকে জিততে হয়। এটা অনেকটা কাউকে অক্সিজেন মাস্ক ছাড়া হিমালয়ে চড়তে বলার মতো।’

নেট রান রেট নিয়ে বর্তমান সময়ে বিতর্ক চলছে। এর ন্যায্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে। বিষয়টি নিয়ে রমিজের ভাষ্য, ‘তারা যদি ৪০০ রান না-ও করতে পারে, অন্তত ম্যাচটা জিতে আসা উচিত। এতে করে কিছুটা সম্মান নিয়ে দেশে ফিরতে পারবে তারা। আর পাকিস্তানের খেলার প্রতি পয়েন্ট টেবিল মোটেই সুবিচার করতে পারেনি।’

এদিকে পাকিস্তান আজ নিজেদের ‘উইনিং কম্বিনেশন’ নিয়ে খেলতে নেমেছে, এতে করে শোয়েব মালিকের আর বিদায়ী ম্যাচ খেলতে মাঠে নামা হয়নি। রমিজের মতে, ‘এটা বিশ্বকাপ, কোনো প্রীতি ম্যাচ নয়। এখানে আপনার সেরা দল নিয়েই মাঠে নামতে হবে। যদিও শোয়েব পাকিস্তান ক্রিকেটকে অনেক কিছু দিয়েছে, তবুও বিশ্বকাপে প্রতিটি ম্যাচে আপনাকে ইনফর্ম খেলোয়াড়দের নিয়েই খেলতে হবে। তবে হয়তো আসিফ আলী বা মোহাম্মদ হাসনাইনের মতো তরুণদের একটা সুযোগ দেওয়া যেত; তারা জিম আর অনুশীলন ছাড়া কিছুই করার সুযোগ পাচ্ছে না।’

ম্যাচের শুরু থেকেই বাংলাদেশি বোলাররা দারুণ নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের বেঁধে রেখেছে। বিশেষভাবে মেহেদী হাসান মিরাজের বোলিংয়েই রানের চাকা অচল হয়ে গিয়েছিল পাকিস্তানের। নিজের প্রথম পাঁচ ওভারের স্পেলে মাত্র ৯ রান দিয়েছেন এই অফ স্পিনার। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পাকিস্তানের সংগ্রহ ৩১ ওভারে ১ উইকেটে ১৬৬ রান।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ