January 28, 2020, 10:22 pm

শিরোনাম :
গাঁজা ব্যাবসায়ী ফারিয়া আটক কেশবপুরের সাগরদাঁড়িতে অনুষ্টিত সপ্তাহব্যাপী মধুমেলার সমাপ্তি র‌্যাব-৫ এর অভিযানে মাইক্রো বাসসহ বিপুল পরিমান গাঁজা উদ্ধার ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কেশবপুর পৌরসভায় ৬ কোটি ৮৭ লক্ষ টাকার ব্যায়ে পানির লাইনের কাজের উদ্বোধন ইয়াবা, দেশী ও বিদেশী মদসহ আটক ৩ সময়সূচী বৃদ্ধির দাবিতে সিরাক বাংলাদেশের মানবন্ধন র‌্যাব-৫ এর অভিযানে বিপুল পরিমান হেরোইন উদ্ধারসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডে অর্ডিন্যান্স বহির্ভূত প্রেষণে অবৈধ নিয়োগ ব্যবস্থা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীকে স্মারকলিপি জৈন্তাপুর ছদ্মবেশী ইয়াবা ব্যবসায়ী আটক ভোলা জেলা পুলিশের আয়োজনে লালমোহন কামিল মাদ্রাসার মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

অপহরণের সত্যতা পাওয়া যায়নি, ফরহাদ মজহার দম্পতির বিরুদ্ধে মামলার অনুমতি চাইল পুলিশ

Spread the love

অপহরণের সত্যতা পাওয়া যায়নি, ফরহাদ মজহার দম্পতির বিরুদ্ধে মামলার অনুমতি চাইল পুলিশ

ডিটেকটিভ নিউজ ডেস্ক             

 

কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহারকে অপহরণের সত্যতা পাওয়া যায়নি মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করে তিনি ও তাঁর স্ত্রী ফরিদা আখতারের বিরুদ্ধে মামলার অনুমতি চেয়েছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে মজহারকে অপহরণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডিবির পরিদর্শক মাহবুবুল ইসলাম প্রতিবেদন দাখিল করে মামলার অনুমতি চান। ঢাকার মহানগর হাকিম খুরশিদ আলমের আদালতে দাখিল করা প্রতিবেদনে বলা হয়, অপহরণের বিষয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন ফরহাদ মজহার। এ বিষয়ে ঢাকার অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার আনিসুর রহমান জানান, অপহরণ মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ওপর শুনানির জন্য আগামি ৭ ডিসেম্বর দিন ধার্য করা হয়েছে। এরপর মিথ্যা তথ্য ও হয়রানির অভিযোগে ফরহাদ মজহার ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে দ-বিধির ১০৯ ও ২১১ ধারা অনুযায়ী মামলার আবেদন করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা মাহবুবুল। চলতি বছরের ৩ জুলাই বিকেলে ফরহাদ মজহারের রাজধানীর শ্যামলী রিং রোডের ১ নম্বর বাড়িতে তাঁর বন্ধু গৌতম দাস সাংবাদিকদের জানান, ভোর ৫টার দিকে বাসার সামনে থেকে কে বা কারা ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। গৌতম জানান, অপহরণের আধা ঘণ্টা পর মজহারের ফোন থেকে তাঁর স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে কল আসে। ফোনে ফরহাদ মজহার বলেন, ‘আমাকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। ওরা আমাকে মেরে ফেলবে। এ কথা বলেই তিনি ফোনটি কেটে দেন। গৌতম আরো জানান, বিষয়টি আদাবর থানার পুলিশকে জানানো হয়। পরে সেদিন দুপুরে মোবাইল ট্র্যাক করে ফরহাদ মজহার খুলনার শিববাড়ী এলাকায় বলে নিশ্চিত হয় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। পরে তাঁকে উদ্ধারে সন্ধ্যা ৬টার দিকে র‌্যাব-৬-এর অধিনায়ক খন্দকার রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে শিববাড়ী এলাকায় কেডিএ অ্যাপ্রোচ রোড, ইব্রাহিম মিয়া রোড এলাকায় বাড়ি বাড়ি তল্লাশি শুরু শুরু হয়। এ সময় আশপাশে চেকপোস্ট বসিয়ে যানবাহনও তল্লাশি করা হয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে যশোরের নোয়াপাড়া এলাকায় হানিফ পরিবহনের একটি বাস থেকে ফরহাদ মজহারকে উদ্ধার করা হয়। দিবাগত রাত ২টার দিকে ঢাকার আদাবর থানা পুলিশ ও ঢাকা মহানগর (ডিএমপি) পুলিশের একটি দল ফরহাদ মজহারকে নিয়ে মাইক্রোবাসে করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়। পরের দিন আদালতে হাজির করা হয় তাঁকে। আদালত ফরহাদ মজদারকে নিজ জিম্মায় যাওয়ার অনুমতি দেন।

Facebook Comments
Share Button

      এ ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ